ঢাকাSaturday , 21 August 2021

দৌলতপুরে ১৫ ও ২১ আগস্ট খুনিদের ফাসির দাবিতে উপজেলা ছাত্রলীগের প্রতিবাদ সমাবেশ

Link Copied!

মামুন আব্দুল্লাহ, মানিকগঞ্জ থেকে: ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার জনসমাবেশে জোট সরকারের সন্ত্রাসী কর্তৃক ইতিহাসের বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ কর্মসূচী ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে দৌলতপুর উপজেলা ছাত্র লীগ।

আজ শনিবার (২১ আগস্ট) মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে বিকাল ৩.০০ টায় উপজেলা চত্বরে এ বিক্ষোভ কর্মসূচী ও প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়েছে।

বিক্ষোভ সমাবেশে উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি ইন্জিনিয়ার মোঃ নাসির উদ্দীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- মানিকগঞ্জ-১ আসনের সাংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ.এম নাইমুর রহমান দুর্জয়, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তায়েবুর রহমান টিপু, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এ্যাড: আজিজুল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল কদ্দুস, প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এম,এ সিফাদ কোরাইশী সুমন, বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন- জেলা ছাত্র লীগের সাধারন সম্পাদক রাজিদুল ইসলাম, আরো বক্তব্য রাখেন- উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক হুমায়ুন কবির শাওন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আসিব আহম্মেদ পিয়াস, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক এস এম আতোয়ার রহমান, সরকারী মতিলাল ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগে সভাপতি শেখ হাসান, সাধারন সম্পাদক সাদিকুর রহমান শাওন প্রমুখ।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন-উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইন্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, শওকত আলী খান,নআখিনুর রহমান, আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ সাইফুল ইসলাম, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আনিসুর রহমান টিটু, উপজেলা ছাত্র লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ পারভেজ খান, সহ-সভাপতি মাসুদুর রহমান বাবু,মোঃ হারুন অর রশিদ, মোঃ রুবেল মিয়া, মোস্তাফিজুর রহমান মুগ্ধ, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ কিলটন মোল্লা, রাজু আহমেদ, মোঃ রাফি হোসেন, যুবলীগ নেতা সোহেল রানা ও বাইজীদ প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা উপর নৃশংস গ্রেনেড হামলা ও আইভি রহমানসহ নিহত সকলের হত্যাকারীদের ফাঁসির রায় দ্রুত কার্যকরের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, ১৭ বছর আগে এই দিনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনার সমাবেশে তৎকালীন জোট সরকারের প্রতক্ষ্য মদদে গ্রেনেড হামলা চালানো হয়। হামলায় নিহত হন আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানসহ ২৪ জন। আহত হন শেখ হাসিনাসহ পাঁচ শতাধিক নেতা-কর্মী। মানুষের আর্তনাদ আর কাতর ছোটাছুটিতে তৈরি হয় এক বিভীষিকা। গোটা দেশ স্তব্ধ হয়ে পড়ে ওই হামলায়। আজ সেই ২১ আগস্ট, নৃশংস হত্যাযজ্ঞের ভয়াল বিভীষিকাময় দিন।

প্রধান অতিথি নাঈমুর রহমান দুর্জয় বলেন, বিএনপি জোট সরকারের আমলে ২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলা হত্যা যজ্ঞে পরিনত হয়। ৭১’ সালের ধ্বংস যঞ্জের পরে বঙ্গবন্ধু এই দেশকে নিয়ে কাজ করেন। সেই সময়ে চক্রান্ত করে তাকে হত্যা করা হয়। কাজেই আমাদের ঐক্যের বিকল্প নেই। আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে অন্য দলের লোকজনের আওয়ামীলীগের ধারের কাছে আসতে পারবেনা। শেষে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণ ভোজের আয়োজন করা হয়।